ফেনীর দগ্ধ মাদ্রাসাছাত্রী “নুসরাত লাইফ সাপোর্টে”

0
47

সংবাদদাতা ::

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে চিকিৎসাধীন ফেনীর সোনাগাজীর মাদ্রাসাছাত্রী নুসরাত জাহান রাফিকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছে ও তার অবস্থা সংকটাপন্ন।

আজ সোমবার জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন গণমাধ্যমকে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, মেয়েটির অবস্থা ভালো না। সোমবার সকালের তার শারীরিক অবস্থা খুবই খারাপ দিকে চলে যায়। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে তাকে লাইফ সাপোর্টে নেওয়া হয়। আমরা তার জন্য সর্বাত্মক চেষ্টা করে যাচ্ছি।

প্রসঙ্গত গত শনিবার সকাল ৯টার দিকে আলিম পর্যায়ের আরবি প্রথম পত্র পরীক্ষা দিতে যায় রাফি। এরপর কৌশলে তাকে পাশের ভবনের ছাদে ডেকে নেওয়া হয়। সেখানে ৪/৫ জন বোরকা পরিহিত দৃর্বৃত্ত ওই ছাত্রীর শরীরে কেরোসিন ঢেলে আগুর ধরিয়ে দেয়। এতে তার শরীরের ৮০ শতাংশ পুড়ে যায়।

দগ্ধ ছাত্রীর চিৎকারে সহপাঠী ও শিক্ষকরা ছুটে এসে তাকে উদ্ধার করে সোনাগাজী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। পরে দুপুরে তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের বার্ন ইউনিটে ভর্তি করা হয়। চিকিৎকরা জানিয়েছেন, তার শরীরের ৮০ ভাগ দগ্ধ হয়েছে। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

আরও জানা গেছে, কিছুদিন আগে ওই ছাত্রীকে শ্লীলতাহানি চেষ্টার অভিযোগে সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসার অধ্যক্ষ সিরাজ উদদৌলা বিরুদ্ধে মামলা করেন তার মা। এ অভিযোগে গত ২৭ মার্চ অধ্যক্ষকে গ্রেপ্তার করে আদালতে পাঠানো হয়।

ওই মামলার জের ধরে অধ্যক্ষের অনুগত শিক্ষার্থীরা এই হামলা করে বলে দাবি করেছে ভুক্তভোগীর পরিবার। এ ঘটনায় এক শিক্ষকসহ ২ জনকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য আটক করেছে সোনাগাজী পুলিশ।

এদিকে গতকাল রবিবার দুপুরে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে শেখ হাসিনা ন্যাশনাল ইনস্টিটিউট অব বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন দেখা করতে গেলে প্রধানমন্ত্রী দগ্ধ রাফির সর্বোচ্চ চিকিৎসা নিশ্চিতে নির্দেশ দেন। একইসঙ্গে তিনি ওই ছাত্রীর সব ধরনের চিকিৎসার দায়িত্ব গ্রহণ করেন প্রধানমন্ত্রী।

ডা. সামন্ত লাল সেন বলেন, প্রধানমন্ত্রী উদ্বেগ প্রকাশ করে বলেছেন, ঘটনাটি খুবই দুঃখজনক। দগ্ধ নুসরাতকে সর্বোচ্চ চিকিৎসা দিতে নির্দেশ দিয়েছেন। পাশাপাশি প্রধানমন্ত্রী তার কার্যালয়ের কর্মকর্তাদের নির্দেশ দিয়ে বলেছেন, এই ঘটনায় জড়িত কেউ যাতে ছাড় না পায়। তিনি জড়িতদের দ্রুত আইনের আওতায় আনার নির্দেশ দিয়েছেন।

চিকিৎসকরা এদিন আরও জানান, শরীরের ৮০ শতাংশ পুড়ে যাওয়া সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল ডিগ্রি মাদ্রাসার আলিম পরীক্ষার্থী রাফির অবস্থা আশঙ্কাজনক। তার চিকিৎসার জন্য ৮ সদস্যের একটি মেডিকেল বোর্ড গঠন করা হয়েছে।

print

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here