উন্নয়ন খাতের অর্থ কাজের জন্য হরিলুট করার নয়-নিক্সন এমপি

0
174

লিড-নিউজ সংবাদদাতা : :

ফরিদপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য ও উন্নয়নের মডেল এমপি হিসাবে খ্যাত মুজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন এমপি বলেছেন, জাতিরজনক বঙ্গবন্ধুর কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলার জনগণের ভাগ্য উন্নয়নের জন্য প্রতিনিয়ত কাজ করছেন বলে গ্রামীণ এলাকায় উন্নয়নের ধারা অব্যাহত রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, দেশের মানুষ উপলব্ধি করছে ভাগ্য উন্নয়নের জন্য আওয়ামীলীগের কোন বিকল্প নেই। বর্তমান সরকার সারাদেশে ব্রিজ, কালভাঁট, রাস্তা, আর্সেনিকমুক্ত পানির টিউবওয়েলসহ উন্নয়নের গতিধারায় বাংলাদেশের প্রতিটি গ্রাম এলাকায় উন্নয়নের মহাসড়কের মাইলফলকে পরিণত করেছেন। এলাকায় উন্নয়নের কাজ উন্নয়নের গতিতে করতে হবে। সুযোগ পেলে উন্নয়নের সুবাধে উন্নয়ন খাতের কাজ করার অর্থ মানে হরিলুট করা নয়।

তিনি আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে ভাঙ্গা উপজেলার মাসিক আইনশৃংখলা ও উন্নয়ন সভায় এসব কথা বলেন।

সংসদ সদস্য বলেন, আমার নির্বাচনী এলাকায় (ভাঙ্গা-সদপুর-চরভদ্রাসন) আওয়ামীলীগ সরকার কি পরিমাণ উন্নয়ণের কাজ হয়েছে জনগণই বলতে পারবেন!

আওয়ামীলীগ ফের ক্ষমতায় আসার পর আজ ভাঙ্গা-সদপুর-চরভদ্রাসন এলাকায় উন্ননয়নের জন্য কোটি কোটি টাকার প্রকল্প এসেছে। কিন্তু অভিযোগ উঠেছে সরকারের উন্নয়নের অর্থ একশ্রেনীর অসাধু ঠিকাদার কাজ করার নামে হরিলুটে মেতে উঠেছেন?

এমপি বলেন, আমি কিছুদিন বিদেশে অবস্থান করছিলাম। সেই সময়ে জনপ্রতিনিধি, সুধী ও সামাজিক মহল অভিযোগ করেন, উন্নয়নের রাস্তার কাজে কিছু অসাধু ঠিকাদার ব্রিজ ও রাস্তার কাজের জন্য রড, সিমেন্ট, কংক্রিট থেকে শুরু করে সকল ক্ষেত্রে ব্যপক অনিয়ম ও দুর্নীতির আশ্রয় নিয়ে কাজ করছেন।

একাজে কাজে কেউ বাঁধা দিলে ঠিকাদার ও তার প্রতিনিধিরা নাকি ভয় দেখান!

তারা বলে থাকেন আমরা অমুক/তমুক হোমরা/চম্রার কাছের লোক। আমার বাড়ি সামনে বা পিছনের জেলায়। আমি উপরের মহলে কাজের পারসেনটেন্স দিয়ে কাজ করছি।

আমি স্পষ্ট করে অসাধু ঠিকাদারদের উদশ্যে বলতে চাই, আপনাদের ঐসকল বিষয় জনগণের নয়। সরকারি কাজে যে শিডিউল থাকবে সেভাবেই কাজ বুঝে দিতে হবে।

একজন সাংসদ ও সরকার প্রতিনিধি হিসাবে বলতে চাই, আপনাদের ভুলে গেলে চলবে না নিক্সন এমপির এলাকায় উন্নয়নের কাজে সুযোগ পেলেই সরকারের উন্নয়ন খাতের অর্থ নিজের ভাগ্য উন্নয়নের জন্য হরিলুট করা যাবে না।

তিনি আরও বলেন, ভাঙ্গা থানার সড়কের কাজের ক্ষেত্রে বিপুল পরিমাণ অনিয়ম ও দুর্নীতির অভিযোগ আমার কাছে এসেছে। কিন্তু বিদেশে অবস্থান করায় নিজে সরজমিনে এসে দেখতে পারিনি। এজন্য তিনি দুঃখ প্রকাশ করেন।

এজন্য সংসদ উপজেলা নির্বাহী অফিসারকে ভাঙ্গায় উন্নয়নের সকল কাজের অগ্রগতি পর্যবেক্ষণ করার জন্য উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যানসহ সরকারি প্রতিনিধিদের একটি সমন্বয় কমিটি গঠন করার নির্দেশনা দেন।

পরে সংসদ সদস্য নিজের বাড়ির এলাকায় স্থানীয় সরকারের একটি উন্নয়নের কাজের অনিয়ম ও দুর্নীতির বাস্তব ফিরিস্তি হিসাবে মোবাইলফোনে ধারণ একটি ছবি ও অপর একটি ইউনিয়নের সেতুর কাজের শুরুতে ফাটলের ছবি উপস্থিত সকলের সামনে তিনি তুলে ধরে চরম ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

আইনশৃংখলা ও উন্নয়ন সভা আজ বিকেলে উপজেলা পরিষদ সেমিনার কক্ষে অনুষ্ঠিত হয়। এসময় উস্থিত ছিলেন উ,চেয়ারম্যান এস এম হাবিবুর রহমান আল হাবিব, উ, নির্বাহী অফিসার মুকতা দিরুল আহমেদ, উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) হিমাদ্রি খীসা , অফিসার ইনচার্জ কাজী সাইদুর রহমান, জেলা পরিষদ সদস্য শাহিনুর রহমান শাহিন, উ, ভাইস চেয়ারম্যান ইছাহাক মোল্লাসহ বিভিন্ন সরকারি দপ্তর প্রধান, ইউপি চেয়ারম্যান ও সাংবাদিকগণ।

print

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here