ডিটিএইচ ডিভাইস সম্প্রচার খাতে শৃংখলা আনবে : হাছান মাহমুদ

0
116

ডেস্ক প্রতিবেদক ::
তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, ডিরেক্ট টু হোম (ডিটিএইচ) সেবা দেশের সম্প্রচার খাতে শৃংখলা আনবে এবং সম্প্রচার সেবাকে প্রান্তিক মানুষের দোরগোড়ায় নিয়ে যাবে।

মন্ত্রী আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর দ্য ওয়েস্টিন হোটেলে বেক্সিমকো কমিউনিকেশন্স প্রবর্তিত দেশের প্রথম ডিটিএইচ সেবা ‘আকাশ’ উদ্বোধনকালে বলেন, ডিটিএইচ সেবা দেশের সম্প্রচার খাতে শৃংখলা আনতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।’

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি বলেন, ‘মহাকাশ বিজয়ে বাংলাদেশের অভিযাত্রায় যুক্ত হলো বেক্সিমকো কমিউনিকেশন্স। দেশের মানুষের কাছে টেলিভিশন চ্যানেল পৌঁছার ক্ষেত্রে জটিলতা এড়াতে, সরকার প্রাপ্য কর পেতে, সুরম্য রাস্তা থেকে তারের জঞ্জাল সরাতে এবং এই খাতে শৃঙ্খলা আনতে ডিটিএইচ পদ্ধতি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।’

আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ও তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘বিশ্বের টেলিভিশন চ্যানেলগুলোকে মানুষের দোরগোড়ায় পৌঁছে দেয়ার জন্য বেক্সিমকো গ্রুপের অন্যতম অঙ্গ প্রতিষ্ঠান বেক্সিমকো কমিউনিকেশন্স ‘আকাশ’ নামে ডিটিএইচ পদ্ধতি প্রবর্তন করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আজকের বাংলাদেশ যে এক অনন্য উচ্চতায় পৌঁছেছে, এটিই বাস্তবতা এবং আজকের এ অনুষ্ঠান তারই স্বাক্ষর।’

‘প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে জলে-স্থলে-অন্তরীক্ষে আজ বাংলাদেশের বিজয়কেতন উড়ছে’ উল্লেখ করে ড. হাছান বলেন, ‘বিশ্বের ৫৭তম দেশ হিসেবে বাংলাদেশ মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-২ পাঠিয়েছে। এর মাধ্যমে বাংলাদেশের পতাকা উড্ডীন হয়েছে অন্তরীক্ষে। সমুদ্র বিজয়ের মাধ্যমে বাংলাদেশের সীমানায় যুক্ত হয়েছে আরো ১ লক্ষ ১৮ হাজার বর্গমাইল। সীমান্ত সমস্যা সমাধানে চুক্তি হলেও বাস্তবায়িত হয়নি ৪৬ বছর। সেই চুক্তি বাস্তবায়ন করে মানুষের পরিচয় ফিরিয়ে দেয়ার মধ্যদিয়ে সীমান্তেও বাংলাদেশের বিজয় হয়েছে।’

বিদেশি টিভি চ্যানেল সম্প্রচার প্রসঙ্গে মন্ত্রী বলেন, ‘বাংলাদেশে আইনগতভাবে কেউ বিদেশি চ্যানেলে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করতে পারে না। এই আইনটি যে শুধু বাংলাদেশে আছে তা নয়, বাংলাদেশের কোনো চ্যানেল অন্যদেশেও বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করতে পারে না। এই আইন ভারত, পাকিস্তান, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র সব দেশে আছে। কিন্তু দীর্ঘদিন ধরে আমাদের দেশে সেটি মানা হচ্ছিল না। আমরা সেই আইন প্রয়োগ করার উদ্যোগ নিয়েছি। ডিটিএইচ পদ্ধতি সে বিষয়েও সহায়ক ভূমিকা রাখবে।’

বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে তার বক্তব্যে গ্রামবাংলার জনগণ যাতে সহজে টিভি চ্যানেল দেখতে পায়, সেদিকে এ প্রতিষ্ঠানকে নজর দেবার আহ্বান জানান।

তথ্য মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় কমিটির সভাপতি হাসানুল হক ইনু, প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা এবং বেক্সিমকো কমিউনিকেশন্স’র ভাইস চেয়ারম্যান সালমান এফ রহমান এমপি, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হক পাপন সম্মানিত অতিথি হিসেবে অনুষ্ঠানে যোগ দেন। বেক্সিমকো কমিউনিকেশন্স-এর চেয়ারম্যান শায়ান এফ রহমান প্রধান নির্বাহী ডিএস ফায়সাল হায়দার যথাক্রমে ধন্যবাদ ও স্বাগত বক্তব্য রাখেন।

নিজ টেলিভিশনকে একটি মডেমের মাধ্যমে ‘আকাশ’ ডিশের সাথে সংযুক্ত করে দেশ-বিদেশের টিভি চ্যানেল দেখার এ পদ্ধতি আগামী ১৯ মে থেকে দেশের ২০টি জেলায় ‘আকাশ ডিটিএইএচ’ নামে বাণিজ্যিকভাবে পাওয়া যাবে।

প্রাথমিকভাবে ঢাকা, ময়মনসিংহ, টাঙ্গাইল, কিশোরগঞ্জ, নরসিংদী, গাজীপুর, নারায়ণগঞ্জ, মানিকগঞ্জ, কুমিল্লা, নোয়াখালী, ফেনী, কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, খাগড়াছড়ি, রাঙামাটি, সিলেট, মৌলভীবাজার, হবিগঞ্জ, ব্রাহ্মণবাড়িয়া এবং সুনামগঞ্জ ছাড়াও শিগগিরই দেশের অন্যান্য জেলাতেও অনুমোদিত খুচরা বিক্রেতাদের কাছ থেকে এ ডিটিএইচ পাওয়া যাবে বলে জানায় বেক্সিমকো কমিউনিকেশন্স। বাসস

print

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here