ফরিদপুরে সেফটি ট্যাংকি পরিষ্কার করতে গিয়ে স্বামী-স্ত্রীর মৃত্যু

0
170

ফরিদপুর সংবাদদাতা :: ফরিদপুর জেলার সদরপুর উপজেলার চরব্রাহ্মণদী গ্রামে নিজ বাড়ির সেফটি ট্যাংকি পরিষ্কার করতে গিয়ে স্বামী-স্ত্রী দুজনের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। নিহতরা হলেন, চর ব্রাহ্মণদী গ্রামের মৃত রাশেদ হাওলাদারের পুত্র সৌদি প্রবাসী মোঃ মিরাজ হাওলাদার (৪৫) ও মিরাজের স্ত্রী চায়না বেগম (৩৫)।

আজ সকাল ১১টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

গ্রামবাসী জানায়, নিহত মিরাজ হাওলাদার আজ থেকে প্রায় ৮ বছর আগে সৌদি আরব যান। সেখানে আকামা’র মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় পুলিশের হাতে আটক হওয়ার পর গত দুই মাস পূর্বে প্রবাস জীবন থেকে একেবারেই দেশে চলে আসেন। স্ত্রী চায়না বেগম সদরপুর উপজেলার ভাষানচর ইউনিয়নের আমিরাবাদ চৌরাস্তা গ্রামের কলম শিকদারের মেয়ে। তাদের ২০ বছর সংসার জীবনে হৃদয় নামে একটি পুত্র সন্তান রয়েছে। হৃদয় ফরিদপুর ইয়াছিন কলেজে পড়ালেখা করে।

নিহতের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, আজ সকালে মিরাজ হাওলাদার তার বাড়ির ১০-১৫ ফুটের একটি মল মজুদ রাখার পাকা নতুন সেফটি ট্যাংকির ভিতর বাঁশ কাঠ সরিয়ে পরিষ্কার করতে ট্যাংকির ভিতরে প্রবেশ করেন। সেফটি ট্যাংকির ভিতরে প্রবেশের পর তিনি অসুস্থ হয়ে পড়ে চিৎকার দেন। তার চিৎকারে স্ত্রী চায়না বেগম স্বামীকে উদ্ধার করতে ওই ট্যাংকির ভিতরে প্রবেশ করেন। চায়না বেগম স্বামীকে উদ্ধার করতে গিয়ে নিজেও গ্যাসে আক্রান্ত হয়ে পড়েন।

পরে পিতা মাতার খোঁজ না পেয়ে তার ছেলে হৃদয় হোসেন (১৮) সেফটি ট্যাংকির কাছে গেলে বাবা মার করুন অবস্থা দেখতে পায়। পরে তার চিৎকারে প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে তাদেরকে ওই ট্যাংকি থেকে উদ্ধার করে মুমুর্ষ অবস্থায় সদরপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসে। হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ রুবানা আফরোজ তাদেরকে মৃত ঘোষণা করেন।

হাসপাতালের কর্তর‌্যবর চিকিৎসক জানান, হাসপাতালে আনার আগেই তাদের মৃত্যু হয়। এ ঘটনায় পুরো এলাকায় শোকের মাতম বিরাজ করছে। দুই পরিবারের সদস্যদের আহাজারিতে পরিবেশ ভারী হয়ে উঠে।

সদরপুর সদর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ শহিদুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, সংবাদ পেয়ে তাৎক্ষণিক ভাবে হাসপাতালে ছুটে যাই। সেখানে গিয়ে মর্মান্তিক ঘটনাটি দেখতে পায় বলে জানান।

print

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here