ভাঙ্গা অনন্ত স্মৃতিহলের পুনঃসংস্কারের কাজ শুরু হচ্ছে

0
193

মামুনুর রশিদ  :: ফরিদপুরের ভাঙ্গার ইতিহাস ও ঐতিহ্যর সাথে সম্পৃক্ত একটি বিশেষ নাম ওরিয়েন্ট লাইব্রেরী ও অনন্ত স্মৃতি হল। ষাটদশকের মধ্যেবর্তী সময়ে ভাঙ্গায় শিক্ষা, সামাজিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক চর্চাবিদদের আন্তরিক প্রচেষ্টায় ওরিয়েন্ট লাইব্রেরী ও অনন্ত স্মৃতি হল ১৯৬৩ খৃষ্টাব্দে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর থেকে ভাঙ্গায় জ্ঞানের আলোর পরিধি ছড়িয়ে আসছিল অনন্ত স্মৃতি হল।

মরহুম শাহ জামান (শাহ সাহের বাড়ি ছিলাধর চর), টুনু চৌধুরী (নুরপুর), আতিকুজ্জামান (সদরদী), এ্যাড, গাফফার খান, এমএ সালাম, এমও মাসুদ, এ্যাড, জহুরুল হক হিরু, হাফিজুর রহমান (হাফিজ মাষ্টার)সহ নাম না জানা অনেক গুণীজনের পৃষ্ঠ পোষকতায় অনন্ত স্মৃতি হল বিভিন্ন সময়ে পরিচালিত হয়ে আসছিল।

ভাঙ্গার প্রাণকেন্দ্র ভাঙ্গা টাউন পাড় পুরাতন খেয়া ঘাট সম্মুখে ভাঙ্গা চৌকি আদালতের পাশেই অবস্থিত ওরিয়েন্ট লাইব্রেরী ও অনন্ত স্মৃতি হল । দীর্ঘদিন ধরে চরম অবহেলা ও অযত্নের কারনে অনন্ত স্মৃতি হলের শুধু সাইনবোর্ড ছাড়া ঘর ও ঘরের সকল আসবাবপত্র মাটিতে লুটিয়ে পড়ায় উই পিঁপড়ের বাসা হিসাবে জায়গা করে নিয়েছিল।

ইতিহাস ও ঐতিহ্যর সাথে সম্পৃক্ত অনন্ত স্মৃতি হলের ভগ্নদশা দেখে একটি সময়ে পথচারীদের অনেকেই (যারা ভাঙ্গার সন্তান এবং অতীত জীবনে দেখেছেন) আক্ষেপে ফেটে পরেছেন। সময়ের পরিবর্তনে কিভাবে একটি এলাকার সাথে সম্পৃক্ত ইতিহাস ও ঐতিহ্যর সহসায় মৃত্যু ঘটে!

বিভিন্ন সময়ে অনন্ত স্মৃতি হলের ভগ্নদশার বাস্তব দৃশ্য নিয়ে ভাঙ্গার সন্তানেরা অনেকেই নিজেদের ফেসবুক ওয়ালে পোস্ট দিয়েছেন। সেই পোস্ট দেখে অনেকেই ব্যথিত, মর্মাহত হয়ে নিজেদের মত করে কমেন্টস করেছেন। বিশেষ করে ভাঙ্গা থেকে প্রকাশিত ভাঙ্গার খবর পত্রিকার সম্পাদক মামুনুর রশিদ তার এফবি ওয়ালে অনন্ত স্মৃতি হলের ভগ্নদশার ভিডিও চিত্র পোস্ট করার পরে প্রবাসী এবং বাংলাদেশের বিভিন্ন এলাকায় জীবিকার তাগিদে যারা অবস্থান করছেন তাদের হৃদয় ফেলে আসা দিনের অতীতের কথা মনে করে নারা দিয়েছিল।

অধুনা বিলুপ্তির পথে হারিয়ে যাওয়া ভাঙ্গার সেই অনন্ত স্মৃতিহলের পুনঃসংস্কারের কাজ অচিরেই শুরু হচ্ছে। বিশেষত অনন্ত স্মৃতি হলের সভাপতি ভাঙ্গার সম্মানিত সিনিয়র জজ বাহাদুরের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায়। অনন্ত স্মৃতিহলের পুনঃসংস্কার করা হচ্ছে। শুভ খবরটি ছড়িয়ে পড়তেই এলাকার শিক্ষা,সামাজিক ও সাংস্কৃতিক চর্চাবিদদের মনে নতুন ধারার স্বপ্ন জেগে উঠেছে। তাদের অনেকের ভাষ্যমতে, দীর্ঘ সময়ের পর সুশীল সমাজের হাত ধরে অনন্ত স্মৃতিহলের পুনঃসংস্কারের কাজ শুরু হচ্ছে এই সংবাদটির গুরুত্ব অপরিসীম। এজন্য প্রথমত তারা সভাপতি ও ভাঙ্গার সম্মানিত সিনিয়র জজ বাহাদুরের কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

পদাধিকার বলে’ অনন্ত স্মৃতিহলের সভাপতির পৃষ্ঠপোষকতায় সাধারণ সম্পাদক এ্যাপলো নওরোজসহ সঙ্গীয় টিম সদস্যরা ভাঙ্গার শিক্ষা, সামাজিক, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক চেতনাধারীদের সাথে নিয়ে অনন্ত স্মৃতিহলের পুনঃসংস্কারের অগ্রগতির ধারাবাহিকতায় প্রতিনিয়ত বৈঠক করছেন। উন্মুক্ত বৈঠকে ভাঙ্গাবাসীর জন্য ম্যাসেজ,অনন্ত স্মৃতিহলের পুনঃসংস্কারের অগ্রগতির ধারাবাহিকতায় আপনারা (ভাঙ্গার সর্ব স্তরের জনগণ) এগিয়ে আসুন। আপনাদের সাথে নিয়ে সম্মানিত সভাপতি, সাধারন সম্পাদকসহ টিম সদস্যরা অনন্ত স্মৃতিহলের অতীত ঐতিহ্যকে ফিরিয়ে আনতে চায়।

print

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here