করোনা জনসচেতনতায় ফেসবুক গ্রুপের ফরিদপুর সাবান বিতরন

0
51

ফরিদপুর সংবাদদাতা :: করোনা জনসচেতনতায় এবার ফেসবুক গ্রুপের বন্ধুদের সাথে নিয়ে ফরিদপুর শহরের খেটে খাওয়া অসহায় গরিব দিনমজুর মানুষের মাঝে হাত ধোয়ার সাবান বিতরন করেছেন ফেসবুক গ্রুপের সদস্যরা। উল্লেখ্য, এই ফেসবুক গ্রুপের সদস্যদের কোন নিজস্ব সংগঠন নেই। তারা ফেসবুকে পোষ্ট দিয়ে কিছু কলেজে পড়ুয়া ছাত্র এবং স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের দুএকজন সদস্য নিয়ে তারা এই মহতী কাজ শুরু করেন।

আজ রবিবার সকাল সাড়ে ১০টায় ফরিদপুর পুলিশ সুপার কার্যালয়ের সামনে থেকে সাবান বিতরন শুরু হয়। শুরুতেই ফরিদপুরের পুলিশ সুপার মোঃ আলিমুজ্জামান সাবান বিতরনের উদ্বোধন করেন। এরপর ফেসবুক গ্রুপের সদস্যরা শহরের বেশ কয়েকটি এলাকায় খেটে খাওয়া মানুষ ও বস্তিবাসিদের মাঝে সাবান বিতরন করেন দুপুর পর্যন্ত। সাবান বিতরন ছাড়াও করোনা ভাইরাস বিষয়ে সচেতনামূলক বক্তব্য প্রদান এবং লিফলেট বিতরণ করেন ফেসবুক গ্রুপ সদস্যরা। এদিকে খেটে খাওয়া অসহায় গরিব দিনমজুর মানুষের মাঝে হাত ধোয়ার সাবান বিতরন করায় বিভিন্ন মহলে এই প্রশংসনীয় উদ্যেগকে স্বাগত জানিয়েছেন।

সম্মিলিত ফেসবুক গ্রুপের পক্ষে এসময় অন্যান্যের মধ্যে রাজেন্দ্র কলেজের অনার্স পড়ুয়া শিক্ষার্থী জহিরুল ইসলাম জহির, স্বেচ্ছাসেবক আলীম আল রাজি, আলপনা আক্তার, কামরুল ইসলাম, সাদি মৃধা, শংকর কুমার সাহা, শুভ, এখলাস প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত কারনে উল্লেখ্য, ফরিদপুরে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে চার হাজার ০৩ জন বিদেশ ফেরত ব্যক্তির তালিকা নিয়ে মাঠে নেমেছে জেলা প্রশাসন ও স্বাস্থ্য বিভাগ। তাদের নিজ উদ্যোগে হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকার কথা থাকলেও অনেকেই সেই নির্দেশনা মানছেন না। করোনাভাইরাস ছড়ানোর আশঙ্কা নিয়েও তারা বাহিরে ঘুরে বেড়াচ্ছেন। গত ১ মার্চ হতে ১৮ মার্চ পর্যন্ত এরা বিদেশ থেকে দেশে এসেছেন। যাদের বেশিরভাগই ভারত থেকে দেশে এসেছেন। ইমিগ্রেশনের চোখ ফাঁকি দিয়ে তারা চলে গেছেন নিজ নিজ গন্তব্যে। এসব বিদেশ ফেরত লোকদের খুঁজে খুঁজে হোম কোয়ারেন্টাইনে রাখার কথা বলছে জেলা প্রশাসন। দিনরাত প্রশাসনকে সাথে নিয়ে কাজ করে চলছেন তাদের সন্ধানের ব্যাপারে।

অপরদিকে সর্বশেষ তথ্যনুসারে ফরিদপুরের সদর উপজেলয় ১৭৩০জন, মধুখালী উপজেলায় ৪৮৬জন, বোয়ালমারী উপজেলা ৪৫৮জন, আলফাডাঙ্গা উপজেলায় ৩২৮জন, চরভদ্রাসন উপজেলায় ২০৩জন, সদরপুর উপজেলায় ৫৯জন, সালথা উপজেলায় ১১জন এবং ভাঙ্গা উপজেলায় ৭১৩জনসহ মোট ৪৩৫৮জন বিদেশ প্রবাসীরা নিজ গ্রামে ফিরেছেন। গোটা জেলায় ৯৭৬জনকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়েছে এবং ১২৫২জনকে বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার তদন্ত উঠে আসলেও অন্যদের সন্ধান জানতে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

এছাড়া নতুন হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকাদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে জেলা পুলিশের সদস্যরা ষ্টিকার দিয়ে চিহৃত করে দিচ্ছেন এবং ফরিদপুরের দুটি যৌনপল্লী লক ডাউন করে দিয়েছে জেলা প্রশাসন ও পুলিশ।

print

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here