চোখের জলে বিদায়’ চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন আল্লামা শফী

0
84

নিজস্ব প্রতিবেদক :: হেফাজতে ইসলাম বাংলাদেশের আমির আল্লামা শাহ আহমদ শফীকে চট্টগ্রামের হাটহাজারীর দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম মাদ্রাসার পাশে দাফন করা হয়েছে। তিনি দীর্ঘ ৩৪ বছর এ মাদ্রাসার মহাপরিচালক ছিলেন।

আজ শনিবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বেলা ৩টায় আল্লামা শফীকে মাদ্রাসা সংলগ্ন কবরস্থানে দাফন করা হয়। এর আগে বেলা সোয়া ২টায় লাখ লাখ ভক্ত-অনুরাগীর অংশগ্রহণে তার জানাজা হয়। এতে ইমামতি করেন আল্লামা শফীর বড় ছেলে মাওলানা মোহাম্মদ ইউসুফ।

শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যা ৬টা ২০ মিনিটে ১০৩ বছর বয়সে ঢাকার আজগর আলী হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন আল্লামা শাহ আহমদ শফী।

আল্লামা শাহ আহমদ শফীর শিক্ষাজীবন থেকে শুরু করে ৮০ বছরই কেটেছে দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম মাদ্রাসাকে ঘিরে। মৃত্যুর মাধ্যমে তার দীর্ঘ ১০৩ বছরের বর্ণাঢ্য জীবনের সমাপ্তি ঘটলো।

আল্লামা শাহ আহদম শফী ১৯১৬ সালে চট্টগ্রামের রাঙ্গুনিয়া উপজেলার সরফভাটা ইউনিয়নের পাখিয়ারটিলা গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবার নাম বরকম আলী এবং মায়ের নাম মেহেরুন্নেছা বেগম। আল্লামা শাহ আহদম শফী দুই ছেলে ও তিন মেয়ের জনক। বড় ছেলে মাওলানা মোহাম্মদ ইউসুফ পাখিয়ারটিলা কওমি মাদ্রাসার পরিচালক। ছোট ছেলে আনাস মাদানী হাটহাজারী মাদ্রাসার শিক্ষা সচিবের দায়িত্বে ছিলেন।

রাঙ্গুনিয়ার সরফভাটায় নিজ গ্রামের মাদ্রাসায় শিক্ষাজীবন শুরু হয় আল্লামা শফীর। এরপর পটিয়ার আল জামিয়াতুল আরাবিয়া মাদ্রাসায় (পটিয়া জিরি মাদ্রাসা) পড়াশোনা করেন তিনি। পরে তিনি হাটহাজারীর দারুল উলুম মঈনুল ইসলাম মাদ্রাসা এবং ভারতের দারুল উলুম দেওবন্দ মাদ্রাসায় উচ্চতর ডিগ্রি অর্জন করেন।

১৯৮৬ সালে আল্লামা শফী হাটহাজারী দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম মাদ্রাসার মহাপরিচালক (মুহতামিম) হিসেবে দায়িত্ব নেন। গত বৃহস্পতিবার রাতে পদত্যাগের আগ পর্যন্ত টানা ৩৪ বছর তিনি এই হাটহাজারী মাদ্রাসার মহাপরিচালকের দায়িত্ব পালন করেন।

কওমি মাদ্রাসাগুলোর শীর্ষ সংগঠন আল হাইয়াতুল উলিয়া লিল জামিয়াতিল কওমিয়া, বেফাকুল মাদারিসের চেয়ারম্যান ছিলেন আল্লামা শাহ আহমদ শফী। তিনি ২০১০ সালে হেফাজতে ইসলাম নামে একটি ধর্মীয় সংগঠন প্রতিষ্ঠা করেন। আল্লামা শফী এ সংগঠনের আমির হিসেবে আমৃত্যু দায়িত্ব পালন করেছেন।

print

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here