‘সংক্ষুব্দতা প্রকাশ করলেন’ ফরিদপুর-৪ আসনের সংসদ সদস্য

0
300

লিড-নিউজ দক্ষিণাঞ্চল অফিস :: সরকারী বা সরকারি বিভিন্ন প্রকল্পের কাজের ক্ষেত্রে সংসদ সদস্যর প্রতিনিধিদের সম্মান না দেখিয়ে নিজেদের ইচ্ছে মত স্থানীয় জনপ্রতিনিধি (ইউপি চেয়ারম্যান) ও বিভিন্ন সরকারি দপ্তরের প্রধানদের কাজের উপর সংক্ষুব্দ হলেন ফরিদপুরের-৪ আসনের সংসদ সদস্য মুজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন এম পি।

তিনি গতকাল ভাঙ্গা উপজেলা পরিষদ সেমিনার কক্ষে অনুষ্ঠিত মাসিক আইনশৃংখলা ও সমন্বয় সভায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্যকালে চরমসংক্ষুব্দতা প্রকাশ করেন। ভাঙ্গা উপজেলা নির্বাহী অফিসার আইনশৃংখলা সভার ও সমন্বয় সভায় সভাপতিত্ব করেন ভাঙ্গা উপজেলা চেয়ারম্যান এসএম হাবিবুর রহমান।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন, ভাঙ্গা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ফাইজুর রহমান, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান শাহাদাৎ হোসেন, আওয়ামীলীগ নেতা এপোলো নওরোজ ও ভাঙ্গা থানার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার গাজী রবিউল ইসলাম, ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শফিকুর রহমান বিভিন্ন ইউপি চেয়ারম্যান এবং সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের প্রধানগনসহ সাংবাদিকরা।

ভাঙ্গার আইনশৃংখলা পরিস্থিতি সন্তোষজনক উল্লেখ করে সংসদ সদস্য মুজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন বলেন, ভাঙ্গা থানার ওসির বিরুদ্ধে একটি রাজনৈতিকচক্র মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করার পাশাপাশি তার বিরুদ্ধে যে ধরনের অপপ্রচার করে আসছে তিনি এর নিন্দা ও ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন সঠিক তদন্তের মাধ্যমে মিথ্যা অভিযোগকারীদের বিরুদ্ধে উল্টো বিচার হওয়ার দাবী তোলেন।

তিনি আরও বলেন, সরকারি নির্দেশনায় সুস্পষ্টভাবে উল্লেখ রয়েছে উন্নয়নমূলক কাজে এবং সরকারি-বেসরকারি যে কোন প্রকল্পের কাজের ক্ষেত্রে স্থানীয় সংসদ সদস্যের দুজন প্রতিনিধি থাকবে কমিটিতে এবং কাজের সমাপ্তি শেষে সংসদ সদস্যের প্রতিনিধিত্বের স্বাক্ষর থাকা বাঞ্ছনীয়।

কিন্ত আজকাল প্রায় দেখা যাচ্ছে ভাঙ্গায় বিভিন্ন ইউনিয়ন জনপ্রতিনিধি ও সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাদের কেউ কেউ সরকারি সেই নির্দেশনা না মেনেই নিজেদের খেয়াল খুশী মত দায়সারাভাবে কাজগুলো করছেন বলে প্রকাশ্য অভিযোগ তুলেন সংসদ সদস্য। তিনি উপস্থিত বিভিন্ন ইউপি চেয়ারম্যান ও সরকারি বিভিন্ন দপ্তরের প্রধানদের কাছে কারন জানতে চাইলে তাদের কেউই সদুত্তর দিতে না পারায় প্রধান অতিথি তাদের প্রতি সংক্ষুদ্ধ হয়ে উঠেন এবং ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

তাৎক্ষনিক সংসদ সদস্য ভাঙ্গা উপজেলা সমাজ সেবা অফিসার আবুল কালাম আজাদকে বয়স্ক ও বিধবা ভাতা বণ্টনে স্থানীয় সংসদ সদস্যের দুজন প্রতিনিধি রাখা হয়েছিল কিনা এবং তাদের উপস্থিতিতে সঠিকভাবে কার্ড বণ্টন করা হয়েছে কিনা জানতে চান? এসময় সমাজসেবা অফিসার কোন সদুত্তর দিতে না পারায় তাকে সাত দিনের মধ্যে উপজেলা নির্বাহী অফিসারের কাছে জবাব দিতে শোকজ করা হয়।

সংসদ সদস্য আরও বলেন, ভাঙ্গা উপজেলা মাধ্যমিক অফিসার জামসেদ আহমেদ এর বিরুদ্ধে তার কাছে অভিযোগ রয়েছে একজন সরকারি অফিসার হয়েও তিনি নিয়মিতভাবে অফিস করছেন না। তিনি (সংসদ সদস্য )ব্যক্তিগতভাবে তিনদিন তার প্রতিনিধি পাঠিয়েও ওই শিক্ষা অফিসারকে পাওয়া যায়নি বলে সরাসরি নিজের ভাষ্য সভায় প্রকাশ করেন সংসদ সদস্য।

ভাঙ্গা উপজেলা মাধ্যমিক অফিসার জামসেদ আহমেদ এর কাছে সংসদ সদস্য এর কারন জানতে চাইলে তার জবাবে শিক্ষা অফিসার তার শারীরিক অবস্থা ভাল নয় বলে উল্লেখ করলে সংসদ সদস্য তার উত্তরে জানান, তাহলে তার অনুপস্থিতিতে অফিসের অন্যকোন জুনিয়রকে দিয়ে কাজগুলো সম্পন্ন করতে। জনপ্রতিনিধির কার্যালয়ে এবং সরকারি অফিসে কোনভাবেই কেউ যাতে হয়রানী শিকার না হয় বিষয়টি সবার মনে রাখতে হবে।

ভাঙ্গা উপজেলা শিক্ষা অফিসার রুহুল আসলামের উপস্থিত বক্তব্যে সংসদ সদস্য বলেন, আপনার বক্তব্যেকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি কিন্ত ভাঙ্গার বিভিন্ন সরকারি বিদ্যালয়ের পুনঃসংস্কারের কাজ কি পরিমানে কতটুকু হয়েছে আমার কাছে তা অতীব দৃশ্যমান। শুধু দুটি একটি বিদ্যালয় ছাড়া অন্য সকল বিদ্যালয়ের কাজ ভাল হয়নি বলে উল্লেখ করে উপস্থিত সভায় নিজের ভাষ্য তুলে ধরেন সংসদ সদস্য মুজিবুর রহমান চৌধুরী নিক্সন এমপি।

ভাঙ্গার মাদক ব্যবসা প্রসঙ্গে সংসদ সদস্য বলেন, আমার কাছে অভিযোগ রয়েছে, ভাঙ্গার কালামৃধা ইউনিয়ন এলাকায় মাদকদ্রব্য বেচাকেনা ওপেন সিক্রেট। কিন্তু সেভাবে কেউ গ্রেপ্তার হচ্ছে না। তিনি আরও বলেন, কালামৃধা এলাকায় সরকারি খাস ভূমি নিয়ে নানবিধ অভিযোগ রয়েছে। এই বিষয়ে ভাঙ্গা সহকারী কমিশনার (ভূমি)র নজরে থাকা দরকার। পরে সংসদ সদস্য পৃথক দুটি বিষয়ে পুলিশ ও ভাঙ্গা ভূমি অফিসকে খতিয়ে দেখতে নির্দেশ দেন।

print

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here