• শনিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২২, ০৯:৪৬ অপরাহ্ন

“প্রেমের দ্বন্দ্বে কলেজ ছাত্র খুন”

Reporter Name / ৬৬৩ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ১ নভেম্বর, ২০১৮

ফরিদপুর সংবাদদাতা :
এবার প্রেমের দ্বন্দ্বে কাজী মুনসিরাতুল রহমান ওরফে আলিফ (১৮) নামে এক কলেজ ছাত্র খুন হয়েছে ফরিদপুরে । আশংকাজনক অবস্থায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য ঢাকায় নেওয়ার পথে রাতে তার মৃত্যু হয়।

আলিফ ফরিদপুর সরকারি ইয়াছিন কলেজের দ্বাদশ বিজ্ঞান বিভাগের ছাত্র ছিল। এ ঘটনায় আহত হয়েছে আলিফের সহপাঠি সাধন কীর্তনীয়া। নিহত আলিফ ফরিদপুরের বোয়ালমারী উপজেলার হাসামদিয়া গ্রামের ব্যাংক কর্মকর্তা দীপু রহমানের ছেলে। বুধবার সন্ধ্যায় প্রতিপক্ষের ধারালো অস্ত্রের আঘাতে আহত হয় আলিফ।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে ফরিদপুর কোতয়ালী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) বিপুল চন্দ্র দে জানান, এ ঘটনায় সন্দেহভাজন হিসেবে ফরিদপুর শহরের চাঁনমারী এলাকার আলমগীর হেসেন এর ছেলে সিফাতকে পুলিশ নজরদারিতে রেখেছে। থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছে।

ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আলিফের সহপাঠি সাধন কীর্তনীয়া জানান, আলিফের সাথে সরকারি সারদা সুন্দরী কলেজের দ্বাদশ শ্রেণীর এক ছাত্রীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক ছিল। কিন্তু সিফাত নামে আরেক যুবক ওই ছাত্রীর সাথে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে তুলতে চায়। এ নিয়ে আলিফ আর সিফাত মধ্যে দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হয়।

বুধবার বিকেলে এ দ্বন্দ্বে মীমাংসা করার কথা বলে আলিফকে সরকারি রাজেন্দ্র কলেজের শহর ক্যাম্পাসে ডেকে নেয় সিফাত। সন্ধ্যায় আলিফ ও সাধন রিকশাযোগে রাজেন্দ্র কলেজে এলাকায় গেলে সিফাত ও তার সহযোগীরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে আলিফকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে আহত করে।

সাধন বাধা দিতে গেলে তাকেও কুপিয়ে আহত করা হয়। এ সময় আলিফ এর প্রতিরোধের মুখে পড়ে হামলাকারী সিফাতও আহত হয়।

স্থানীয়রা গুরুতর আহত অবস্থায় আলিফকে প্রথমে ফরিদপুর জেনারেল হাসপাতালে ও পরে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিলে সেখানে তার অবস্থার অবনতি হয়। পরে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য এ্যাম্বুলেন্সযোগে ঢাকায় নেওয়ার পথে সাভার এলাকায় আলিফ মারা যায়। আহত সাধন ও সিফাত ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও সংবাদ