• বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০৬:০১ পূর্বাহ্ন
শিরোনামঃ
মোবাইলে সরাসরি রেমিট্যান্স পাঠাতে পারবেন প্রবাসীরা ১০ টাকার টিকিট কেটে চোখ দেখালেন প্রধানমন্ত্রী ভাঙ্গায় নারীর সামাজিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়ন ভাবনা সেমিনার অনুষ্ঠিত যুক্তরাষ্ট্রে ৩ ফুটবলারকে গুলি করে হত্যা ভাঙ্গায় আরও ৪০টি ভূমিহীন পরিবারের মাঝে ঘর বিতরণ করেছে উপজেলা প্রশাসন জাতিসংঘের মানবাধিকার পরিষদের সদস্য হলো বাংলাদেশ ভাঙ্গা মাদানী নগর কবর স্থান পরিচালনার নতুন কমিটি গঠন অধ্যক্ষ আবু ইউসুফ মৃধা ভাঙ্গায় শ্রেষ্ঠ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধান নির্বাচিত নেতাকর্মীদের ওপর হামলা, পুলিশকে দুষছেন বিএনপির আমান ভাঙ্গায় শান্তিপূর্ন পরিবেশে এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

মুন্সীগঞ্জে বন্দুকযুদ্ধে শীর্ষ সন্ত্রাসী নিহত

Reporter Name / ৫০৫৬ Time View
Update : শনিবার, ১৭ নভেম্বর, ২০১৮

মুন্সীগঞ্জ সংবাদদাতা :

মুন্সীগঞ্জের শ্রীনগর উপজেলার বাড়ৈখালি এলাকায় পুলিশের সঙ্গে ‘বন্দুকযুদ্ধে’ মো. তাজেল (৩৬) নামে এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। শুক্রবার দিবাগত রাত সোয়া ১টার দিকে উপজেলার বাড়ৈখালি এলাকায় এই বন্দুকযুদ্ধের ঘটনা ঘটে। এসময় একটি একনলা বন্ধুক, তিনটি গুলি, তিনটি ছোরা ও ১০৫ পিস ইয়াবা উদ্ধারের কথা জানিয়েছে পুলিশ।

পুলিশ বলছে, নিহত তাজেল উপজেলার শীর্ষ সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে থানায় ১০টি মামলা রয়েছে। তিনি উপজেলার বাঘড়া এলাকার বাসিন্দা।

শ্রীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. ইউনুচ আলী জানান, তাজেল অনেক দিন ধরে এলাকায় বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড চালিয়ে আসছিলেন। তার বিরুদ্ধে শ্রীনগর থানায় হত্যা, মাদক ব্যবসা, অবৈধ অস্ত্র রাখা, ডাকাতি, পুলিশের ওপর হামলাসহ বিভিন্ন অভিযোগে ১০টি মামলা রয়েছে। তিনি এসব মামলার সাজাপ্রাপ্ত পরোয়ানাভুক্ত আসামি।

ওসি আরও জানান, তাজেল যশোরের মনিরামপুরে অবস্থান করছেন এমন গোপন খবর পেয়ে মনিরামপুর থানার পুলিশের সহযোগিতায় শুক্রবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সেখান থেকে তাজেলকে গ্রেপ্তার করা হয়।
পরে রাত ১২টার দিকে শ্রীনগর থানায় আনা হয়। থানায় জিজ্ঞাসাবাদে তাজেল তার কাছে লুকিয়ে রাখা অস্ত্রের তথ্য দেন। তার দেওয়া স্বীকারোক্তি অনুযায়ী তাকে সঙ্গে নিয়ে অস্ত্র উদ্ধারে যায় পুলিশ।

রাত ১টার দিকে বাড়ৈখালি এলাকায় পৌঁছালে তাজেলের সহযোগীরা পুলিশকে লক্ষ্য করে গুলি ছোড়ে। আত্মরক্ষার্থে পুলিশও পাল্টা গুলি চালায়। দুই পক্ষের মধ্যে গুলিবিনিময়ে একপর্যায়ে তাজেলের সহযোগীরা পালিয়ে যায়। এসময় পুলিশের একজন সহকারী উপপরিদর্শকসহ (এএসআই) তিন সদস্য আহত হন।

ঘটনাস্থলে তাজেলকে গুলিবিদ্ধ অবস্থায় উদ্ধার করে ষোলঘর স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হলে চিকিৎসকরা তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

নিহত তাজেল একই উপজেলার বাঘড়া ইউনিয়নে রুদ্রপাড়া গ্রামের দীন ইসলাম ওরুফে এলাহী খোরশেদের ছেলে।

আহত পুলিশ সদস্য এএসআই আবুল কায়সার, কনস্টেবল সজল ও শহীদকে মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

নিহত তাজেলের লাশ ময়নাতদন্তের জন্য মুন্সীগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও সংবাদ