• মঙ্গলবার, ২৯ নভেম্বর ২০২২, ১১:১৭ অপরাহ্ন
শিরোনামঃ
মোবাইলে সরাসরি রেমিট্যান্স পাঠাতে পারবেন প্রবাসীরা ১০ টাকার টিকিট কেটে চোখ দেখালেন প্রধানমন্ত্রী ভাঙ্গায় নারীর সামাজিক ও অর্থনৈতিক উন্নয়ন ভাবনা সেমিনার অনুষ্ঠিত যুক্তরাষ্ট্রে ৩ ফুটবলারকে গুলি করে হত্যা ভাঙ্গায় আরও ৪০টি ভূমিহীন পরিবারের মাঝে ঘর বিতরণ করেছে উপজেলা প্রশাসন জাতিসংঘের মানবাধিকার পরিষদের সদস্য হলো বাংলাদেশ ভাঙ্গা মাদানী নগর কবর স্থান পরিচালনার নতুন কমিটি গঠন অধ্যক্ষ আবু ইউসুফ মৃধা ভাঙ্গায় শ্রেষ্ঠ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান প্রধান নির্বাচিত নেতাকর্মীদের ওপর হামলা, পুলিশকে দুষছেন বিএনপির আমান ভাঙ্গায় শান্তিপূর্ন পরিবেশে এসএসসি ও দাখিল পরীক্ষা অনুষ্ঠিত

প্রতিটি বিভাগে অটিজম পরিচর্যা কেন্দ্র হবে : প্রধানমন্ত্রী

Reporter Name / ২০৪৫ Time View
Update : মঙ্গলবার, ২ এপ্রিল, ২০১৯

ডেস্ক প্রতিবেদক ::

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, প্রতিবন্ধীদের কথা চিন্তা করে দেশের প্রতিটি বিভাগে অটিজম পরিচর্যা কেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করা হবে।অটিজম আক্রান্তরা জাতির বোঝা নয়।

আজ মঙ্গলবার সকালে বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে ১২তম বিশ্ব অটিজম সচেনতনা দিবসের অনুষ্ঠানে এসব কথা বলেন তিনি। অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সমাজকল্যাণ মন্ত্রী নুরুজ্জামান আহমেদ, স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক, সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয় বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি রাশেদ খান মেননসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় মেয়েদের এবং বগুড়ায় ছেলেদের জন্য অটিজম পরিচর্যা কেন্দ্র করে গড়ে তোলা হয়েছে। ভবিষ্যতে দেশের প্রতিটি বিভাগে অটিজম পরিচর্যা কেন্দ্র গড়ে তোলা হবে। সম্ভব হলে প্রতিটি জেলায় এসব কেন্দ্র করা হবে।

‘কারণ অটিজম আক্রান্ত বা প্রতিবন্ধী ছেলে-মেয়েদের নিয়ে তাদের বাবা-মার একটা চিন্তা থাকে। তাদের সেই চিন্তা দূর করার জন্য আমরা এ উদ্যোগ নিচ্ছি। আর এ সংক্রান্ত ট্রাস্ট ফান্ড গঠন করা হয়েছে। এর মাধ্যমে তাদের সহায়তা করবো। সেক্ষেত্রে বিত্তশালীদের বলবো, ফান্ডে আপনারা অনুদান দিতে পারেন।’ বাবা-মার অবর্তমানে প্রতিবন্ধীদের পরিচর্যার ব্যবস্থা করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের সব প্রতিবন্ধীদের জন্য বিশেষ ভাতার ব্যবস্থা করা হবে। প্রতিবন্ধীদের অধিকার নিশ্চিত করতে হবে। এজন্য আগামী বাজেটে দেশের ১৪ লাখ অটিস্টিক শিশুকে ভাতার আওতায় আনার ঘোষণা দেন তিনি।

অটিস্টিক শিশুদের সুপ্ত প্রতিভা বিকাশে সরকার সব ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছে উল্লেখ করে বঙ্গবন্ধুকন্যা বলেন, অটিস্টিক শিশুদের প্রতিভা কাজে লাগাতে হবে। প্রতিটি জেলায় প্রতিবন্ধী পরিচর্যা কেন্দ্র গড়ে তোলা হবে। অটিস্টিক শিশুদের শিক্ষা ও খেলাধুলায় এগিয়ে নিতে সরকার কাজ করছে। প্রতিবন্ধীদের জন্য সাভারে ক্রীড়া কমপ্লেক্স করা হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, ১৯৭৪ সালে বঙ্গবন্ধুর সরকার সমাজকল্যাণ পরিদপ্তরের মাধ্যমে দেশের ৪৭টি সাধারণ বিদ্যালয়ে দৃষ্টি প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের সমন্বিত শিক্ষা গ্রহণের সুযোগ করে দেয়। সে সময়ের বাস্তবতায় প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থীদের মূলধারার বিদ্যালয়ে অংশগ্রহণের সুযোগ দিতে সমন্বিত শিক্ষা কার্যক্রম ছিল প্রগতিশীল, যুগোপযোগী ও কার্যকর একটি পদক্ষেপ।

প্রধানমন্ত্রী জানান, তার সরকার ‘প্রতিবন্ধী ব্যক্তির অধিকার ও সুরক্ষা আইন, ২০১৩’ এবং ‘নিউরো-ডেভেলপমেন্টাল প্রতিবন্ধী সুরক্ষা ট্রাস্ট আইন, ২০১৩’ আইন পাস করেছে। এ সম্পর্কিত প্রয়োজনীয় বিধিও প্রণয়ন করা হয়েছে। ২০১৪ সালে প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে ‘নিউরো-ডেভেলপমেন্টাল প্রতিবন্ধী সুরক্ষা ট্রাস্ট’।

এ পর্যন্ত সরকার এই ট্রাস্টকে ৭০ কোটি ৯৭ লাখ টাকা অনুদান দিয়েছে। ট্রাস্ট থেকে ২০১৭-১৮ অর্থবছরে ৮১১ জন অস্বচ্ছল নিউরো-ডেভেলপমেন্টাল প্রতিবন্ধী ব্যক্তিকে ৪০ লাখ ৫৫ হাজার টাকা চিকিৎসা সহায়তা হিসেবে দেওয়া হয়েছে। চলতি অর্থবছরে ১২০০ জনকে ৭০ লাখ টাকা সহায়তা দেওয়া হবে বলে জানান প্রধানমন্ত্রী।

তিনি আরও বলেন, সরকার ১০ লাখ প্রতিবন্ধী ব্যক্তিকে মাসিক ৭০০ টাকা হারে ভাতা এবং ৯০ হাজার অস্বচ্ছল প্রতিবন্ধী ছাত্রছাত্রীকে মাসিক ৭০০ টাকা থেকে ১২০০ টাকা হারে শিক্ষা উপবৃত্তি দিচ্ছে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published.

আরও সংবাদ