• শনিবার, ১২ জুন ২০২১, ০৫:৪৪ অপরাহ্ন

ঊর্ধ্বমুখী পুঁজিবাজারে চার মাসে ১ লাখ ১০ হাজার নতুন বিনিয়োগকারী

Reporter Name / ৫৬ Time View
Update : বৃহস্পতিবার, ২৯ এপ্রিল, ২০২১

ডেস্ক নিউজ :: পুঁজিবাজারের প্রতি আবারও আগ্রহ বাড়ছে বিনিয়োগকারীদের। চলতি বছরের বাজার ধীরে ধীরে চাঙ্গা হওয়ার কারণে প্রতিনিয়তই বাজারে নতুন বিনিয়োগকারীর সংখ্যা বাড়ছে। চলতি বছরের চার মাসে পুঁজিবাজারে নতুন বিনিয়োগকারী প্রবেশ করেছে ১ লাখ ১০ হাজার ৫১২ জন জন। সেন্ট্রাল ডিপোজিটরি বাংলাদেশ লিমিটেড (সিপিডিএল) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।
বিজ্ঞাপন

সূত্র জানায়, সিডিবিএলর সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত ৩১ ডিসেম্বর ২০২০ সালে পুঁজিবাজারে বেনিফিশিয়ারি ওনার্স (বিও) হিসাব ছিল ২৫ লাখ ৫২ হাজার ১৬৮টি। চলতি বছরের ২৮ এপ্রিল পর্যন্ত বিও হিসাব বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৬ লাখ ৬২ হাজার ৬৮০ টিতে। চলতি বছরের প্রথম চার মাসে বিও হিসাব বেড়েছে ১ লাখ ১০ হাজার ৫১২টি।

সিডিবিএল‘র তথ্য অনুসারে, গত ৩১ শে ডিসেম্বর মোট বিও হিসাবের মধ্যে পুরুষ বিনিয়োগকারীর বিও হিসাব ছিল ১৮ লাখ ৭৭ হাজার ৯৬৯টিতে। নারী বিনিয়োগকারীদের বিও হিসাব ছিল ৬ লাখ ৬০ হাজার ৩৬৪টিতে। এ ছাড়াও গত ডিসেম্বর মাসের শেষ দিন কোম্পানি বিও হিসাব ছিল ১৩ হাজার ৮৩৫টিতে।
বিজ্ঞাপন

এদিকে গত চার মাসে পুঁজিবাজার চাঙ্গা থাকায় প্রতিনিয়ত বাজারে নতুন বিনিয়োগকারী প্রবেশ করছেন। এতে করে ২৮ এপ্রিল পুঁজিবজারে নতুন বিনিয়োগকারী প্রবেশ করেছে এক লাখ ১০ হাজার ৫১২ জন। এর মধ্যে পুরুষ বিনিয়োগকারীর সংখ্যা ১৯ লাখ ৬২ হাজার ২১ জন এবং নারী বিনিয়োগকারীর সংখ্যা ৬ লাখ ৮৬ হাজার ২৫৪ জন। আর বিভিন্ন কোম্পানির বিও হিসাবের সংখ্যা ১৪ হাজার ৩৯৫টি। সর্বশেষ চার মাসে পুঁজিবাজারে পুরুষ বিও হিসাব বেড়েছে ৮৪ হাজার ৫২ জন, নারী বিনিয়োগকারী বেড়েছে ২২ হাজার ৮৯০ জন এবং কোম্পানি বিও হিসাব বেড়েছে ৪৬০টি।

এ ব্যাপারে পুঁজিবাজার বিশ্লেষক ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের শিক্ষক অধ্যাপক আবু আহমেদ সারাবাংলাকে বলেন, পুঁজিবাজার ঊর্ধ্বমুখী সময়ে বাজারে নতুন বিনিয়োগকারী প্রবেশ করে। আবার বাজার কিছুটা মন্দা দেখা দিলে অনেকে সব শেয়ার বিক্রি করে বের হয়ে যায়। এ সব কারণে সব সময় বাজারে কিছু বিনিয়োগকারী আসা যাওয়া করেন।
বিজ্ঞাপন

তিনি বলেন, বাংলাদেশের পুঁজিবাজারে বিনিয়োগকারীদের আচরণ সব সময় বিপরীতমুখী। নিয়ম হলো মন্দা পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করলে লাভের সম্ভাবনা বেশি থাকে। কিন্তু বাংলাদেশের পুঁজিবাজারে দরপতন হলে বিনিয়োগকারীরা আতঙ্কে শেয়ার বিক্রি করে বাজার থেকে বের হয় যান। আবার বাজার চাঙ্গা হলে কিছু নতুন বিনিয়োগকারী প্রবেশ করে। এ সব কারণে গত কয়েক মাসে বাজারে নতুন বিনিয়োগকারী প্রবেশ করেছেন। এটা পুঁজিবাজারের জন্য ইতিবাচক দিক।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category