• শুক্রবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৫০ পূর্বাহ্ন
Headline
‘রুদ্ধদ্বার’বৈঠকে তৃতীয় দিনে বিএনপি ইভ্যালির চেয়ারম্যান-সিইওর বাসায় র‌্যাবের অভিযান জিয়ার লাশের নামে বাক্স সাজিয়ে-গুছিয়ে আনা হয়েছিল: প্রধানমন্ত্রী গণমাধ্যমে শৃঙ্খলা আনার দাবি সাংবাদিকদেরই : তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী অনলাইন সংবাদপোর্টাল নিবন্ধন চলমান প্রক্রিয়া, হাইকোর্টের নির্দেশনা শৃঙ্খলায় সহায়ক : তথ্য ও সম্প্রচারমন্ত্রী রোববার থেকে ৪ ঘণ্টা সিএনজি স্টেশন বন্ধ অসত্য উপস্থাপন করা বিএনপির রেওয়াজে পরিণত হয়েছে: কাদের ইভ্যালির চেয়ারম্যান ও সিইওর বিরুদ্ধে গুলশান থানায় মামলা কেজি প্রতি দইয়ে ৩০০ গ্রাম কম! লাখ টাকা জরিমানা ভাঙ্গায় মাঠ পর্যায়ে কার্যকর ও জবাদিহিমূলক সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত

কেজি প্রতি দইয়ে ৩০০ গ্রাম কম! লাখ টাকা জরিমানা

Reporter Name / ৩১ Time View
Update : বুধবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২১

ফরিদপুর সংবাদদাতা :: ওজনে কম দেওয়া, নিম্নমানের খাবার পরিবেশন এবং অপরিচ্ছন্ন পরিবেশের জন্য ফরিদপুরে নামকরা দুটি মিষ্টির দোকানসহ দুটি রেস্তোরাঁয় অভিযান চালিয়ে জরিমানা করেছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। বিভিন্ন মিষ্টি ছাড়াও বিশেষ করে এক কেজি দইতে ৩০০ গ্রাম দই বিক্রি করে আসছিল। অর্থাৎ প্রতি কেজি দইতে ৩০০ গ্রাম করে দই কম দিয়ে আসছে।

মঙ্গলবার (৭ সেপ্টেম্বর) দুপুর থেকে সন্ধ্যা পর্যন্ত শহরের গোয়ালচামট ও নিলটুলী এলাকার চারটি দোকানে অভিযান চালান ভ্রাম্যমাণ আদালত। ফরিদপুর জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ের জ্যেষ্ঠ সহকারী কমিশনার ইমাম রাজী অভিযানে নেতৃত্ব দেন। র‌্যাব-৮ ফরিদপুর ক্যাম্পের সদস্যরাও এতে সহযোগিতা করেন।

এসময় বাগাট রাজকুমার মিষ্টান্ন ভান্ডার ও বাগাট ঘোষ মিষ্টান্ন ভান্ডারকে ৫০ হাজার করে জরিমানা করা হয়। সেই সঙ্গে ভেজাল খাবার পরিবেশনের অভিযোগে সুইট হোটেল অ্যান্ড রেস্তোরাঁকে ১০ হাজার টাকা এবং অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে রান্না করায় খন্দকার চাইনিজ রেস্তোরাঁকে পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

জ্যেষ্ঠ সহকারী কমিশনার ইমাম রাজী জানান, মিষ্টান্ন ভান্ডার দুটি প্রতি কেজি দইয়ে ৩০০ গ্রাম করে কম দিচ্ছিল। ক্রেতা এক কেজি দই কিনে প্রতি কেজিতে পাচ্ছিলেন ৭০০ গ্রাম। এতে প্রত্যেক ক্রেতা প্রতারিত হচ্ছিলেন এবং বিক্রেতা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন লঙ্ঘন করছিলেন। এছাড়া অপরিচ্ছন্ন পরিবেশে রান্না এবং নিম্নমানের খাবার পরিবেশন করায় আরও দুটি প্রতিষ্ঠানকে জরিমানা করা হয়। নিয়মিত এ অভিযান পরিচালনা করা হবে বলেও জানান তিনি।

এদিকে শহরের বাগাট রাজকুমার মিষ্টির দোকানের বিরুদ্ধে জেলা প্রশাসনের অভিযানকে ধন্যবাদ জানিয়েছে জেলার বিশিষ্ট জনেরা। বাগাট মিষ্টির দোকানের বিরুদ্ধে ক্রেতাদের অভিযোগ ছিল দীর্ঘদিনের বলে জানান স্থানীয় ভুক্তভগীরা।

প্রশাসনের এ অভিযান নিয়মিত অব্যাহত থাকবে বলেও জানান ফরিদপুরের জৈষ্ঠ্য কমিশনার ইমাম রাজী।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category